ফেসবুক পৃথিবীর সেরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। ফেসবুকে ২ বিলিয়ন প্লাস এক্টিভ ইউজার রয়েছেন। আর প্রতি মাসে এর ইউজার দিন দিন বেড়ে চলছে। আমরা সবাই ফেসবুক ব্যবহার করি। (meta) 

ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার ৭ টি উপায়
ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার ৭ টি উপায় 



 কিন্তু এর মধ্যে অনেকে সাধারণ ইউজার তার শুধু ফেসবুকে পোষ্ট করে স্টরি দেখে অনেকে জানে না যে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। কিছু সংখ্যক মানুষ যানে যে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়।

 কিন্তু ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার অনেক কষ্ট কর। তাই আজকে কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যাবে তা নিয়ে আলোচনা করব

আরো পড়ুন 


১. ফেসবুকে ভিডিও থেকে আয় 


আমরা সবাই জানি ইউটিউব ভিডিও থেকে টাকা ইনকাম করা গুগল এডসেন্স মধ্যমে। ইউটিউবের মতো ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম করার সুযোগ রয়েছে। 

এর জন্য আপনার দরকার একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আর একটি ফেসবুক ফ্যান পেজ দরকার। ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম করার জন্য কিছু নিয়ম কারণ বা শর্ত পূরণ করতে হবে।

শর্ত গুলো হলো ৬০ দিনের মধ্যে আপনার ফেসবুক পেজে ১০ হাজার ফলোয়ার করতে হবে। তারপর ৩০ হাজার মিনিট ওয়াচ টাইম লাগবে অবশ্য মনে রাখবে ১ মিনিটের বেশি আপনার ভিডিও দেখলে সেই গুলো ওয়াচ টাইম হিসেবে গণণা করা হবে। 

তারপর ১৫ হাজার এঙ্গেজমেন্ট লাগবে মানে লাইট কমেন্ট শেয়ার ইত্যাদি। শর্ত গুলো ৬০ দিনের মধ্যে পূরণ হলে তারপর ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশন পাবেন।

২. ফেসবুক কন্টেন্ট লিখে


গুগলে যেমন কন্টেন্ট লিখে যেমন আয় করা যাই তেমন ফেসবুকে ও ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল দিয়ে টাকা ইনকাম করা যায়। এর জন্য দরকার আপনার ব্লগ ওয়েবসাইটের।

 একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে তার মধ্যে আপনার ওয়েবসাইটে করা পোস্ট গুলো আপনার ফেসবুক পেজে লিংক গুলো শেয়ার করবেন। 

তারপর সেই শেয়ার করা লিংকে যদি ত্রিশ হাজার ক্লিক করতে হবে। তারপর আপনার পেজে পাঁচশ থেকে এক হাজার লাইক থাকলে হবে। আর নিয়মিত আর্টিকেল পোস্ট করতে হবে। 

৩. ফেসবুক পেজ বিক্রি 


আপনার ফেসবুক পেজে যদি বেশি লাইক ফলোয়ার থাকে। সেই ফেসবুক পেজ বিক্রি করে ভালো টাকা ইনকাম করা যায়। অনেক ব্লগার ইউটিউবার তাদের চ্যানেল বা ব্লগ পোস্ট প্রমোট করার জন্য ফেসবুক পেজ কিনে থাকে। 

পেজ বিক্রি করার জন্য বিভিন্ন বাই সেইল গ্রুপে একটি পোস্ট করবেন তাতে হবে। গ্রুপ থেকে সহজে বাইয়ার পেয়ে যাবেন। 

৪. ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় 


আপনার ফেসবুক গ্রুপে যদি ১০ হাজার ও বেশি ফলোয়ার এক্টিভ থাকে তাহলে তার থেকে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তা কিভাবে করবেন বিভিন্ন কোম্পানি প্রডাক্ট বা বিভিন্ন ব্রান্ড প্রমোট করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

এছাড়াও বিভিন্ন ফেসবুক পেজ ও প্রমোট করতে পারবেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, বিভিন্ন সার্ভিস, নিজের প্রডাক্ট থাকলে তা বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

৫. পণ্য বিক্রি 


ফেসবুকে আপনি সহজে নানা বয়সের টার্গেট কাস্টমার পেয়ে যাবেন। এখানে আপনি সহজে মার্কেটিং করতে পারবেন। প্রফেশনাল ভাবে ফেসবুক পণ্য বিক্রি করার জন্য আপনার একটি ফেসবুক বিজনেস পেজ তৈরি করতে হবে।

 তারপর আপনার পণ্যর ছবি ও তার বিস্তারিত তথ্য দিয়ে আপলোড করবেন। দ্রুত পণ্য বিক্রি করার জন্য ফেসবুক বিজ্ঞাপন দিতে হবে। ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিলে আপনি সহজে আপনার টার্গেট কাস্টমারের কাছে পৌঁছাতে পারবেন। দ্রুত পণ্য বিক্রি করতে পারবেন 


৬. ফ্রিল্যান্সিং 


শুনে একটু অবাক হলেন তো। আফ ওয়ার্ক, ফাইভার, ফ্রিল্যান্সার মতো আপনি ফেসবুকে ও সহজে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন।এখানে ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য সহজে বাইয়ার পেয়ে যাবেন। 

৭. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং 


ফেসবুক সব বয়সি মানুষ থাকায় এখানে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা অনেক সহজে। আপনি কাস্টমারের চাহিদা বুঝে তাদের জন্য সঠিক প্রডাক্ট নির্বাচন করে তা লিংকের মধ্যে তাদের কাছে পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। 

ফেসবুকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এখানে ডোমেন হোস্টিং কেনার ঝামেলা নেই শুরু একটি ফেসবুক পেজ থাকলে তাতে হবে। 

আরো পড়ুন 



Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন