রিসেলার ব্যবসা বিনা পুঁজিতে শুরু করতে পারবেন। এই ব্যবসা আপনার না পণ্য উৎপাদন করতে হবে না তা ডেলিভারি দিতে হবে। এইসব কিছুর ঝামেলা নেই।একজন রিসেলার কাজ হচ্ছে উৎপাদনকারী থেকে কম দামে পণ্য কিনে সেই পণ্য একটু বেশি দামে ক্রেতা কাছে বিক্রি করা হচ্ছে রিসেলার ব্যবসা। (reseller business) 


রিসেলার ব্যবসা কি? কিভাবে রিসেলার ব্যবসা শুরু করবেন
রিসেলার ব্যবসা কি? কিভাবে রিসেলার ব্যবসা শুরু করবেন 


রিসেলার ব্যবসা অনেকটা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং মতো। পড়ালেখা পাশাপাশি ঘরে বসে টাকা আয় করার জন্য রিসেলার ব্যবসা একটা ভালো উপায়। রিসেলার বিজনেস করে অনেক মুনাফা অর্জন করার সুযোগ রয়েছে।

রিসেলার ব্যবসা কেন করবেন 

ব্যবসা করার জন্য সময়ে সাথে নানা রকম কৌশল ও দক্ষতা অবলম্বন করতে হবে। রিসেলার ব্যবসার মধ্যে ও আপনাকে নানা রকম কৌশল অবলম্বন করতে হবে। একবার যদি এই ব্যবসা সফল হয়ে যান তাহলে এটিকে আপনি আপনার ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারবেন। 


রিসেলার ব্যবসার কিভাবে করবেন 

রিসেলার ব্যবসা অনলাইন - অফলাইন দুই রকম ভাবে করা যায়। রিসেলার ব্যবসা করার জন্য কোনো দোকান বা ঘরের প্রয়োজন হয় না। তাই ঘরে বসে অনলাইনে ব্যবসা করা যায় যেমন ফেসবুক পেজ , ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে ও কিছু টাকা ইনভয়েসট করে একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইটে তৈরি করে  ইত্যাদি তে ব্যবসা করা যায়। 

এছাড়া বাংলা দেশে অন্যতম রিসেলার প্লেটর্ফম deshify সাহায্য আপনারা রিসেলিং বিজনেস শুরু করতে পারবেন। deshify ওয়েবসাইটে গিয়ে  আপনার প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন দিয়ে একটি ফর্ম পূরণ করে  অ্যাকাউন্ট তৈরি করে সেখান থেকে প্রডাক্ট নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। 

এছাড়াও বাংলাদেশে আরো কিছু রিসেলার ওয়েব সাইট রয়েছে যেখানে থেকে আপনি পণ্য নিতে পারেন যেমন 

  • রিসেলার অনলি ( reseller only ) 
  • রিসেলার হাব (reseller hub ) 
  • বি বাজার ( bbazer ) 


ভিডিও তৈরি 


আপনি ভালো ভালো কন্টেন্ট বা ভিডিও তৈরি করতে পারেন তাহলে। প্রতিটা পণ্যর ভিডিও তৈরি করে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া তা দিয়ে মার্কেটিং করতে পারবেন। যেমন ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক ইত্যাদি। 

বড় ভিডিও পাশাপাশি শর্ট ভিডিও ও তৈরি করতে পারবেন। শর্ট ভিডিও তৈরি করতে সময় ও অনেক কম লাগবে। অল্প সময়ে অনেক প্রডাক্টের ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। শর্ট ভিডিও গুলো ইউটিউব শর্ট, টিকটকে আপলোড করে যেখানে থেকে অর্ডার নিতে পারবেন

কন্টেন্ট লিখে 


প্রতিটি পণ্যর বিস্তারিত রিভিউ লিখবেন। যাতে একজন কাস্টমার সহজে বুঝতে পারে কিভাবে এই পণ্যটি ব্যবহার করতে হবে। 

রিসেলার ব্যবসা ঝুঁকি কেমন 

সকল ব্যবসা কম বেশি ঝঁকি রয়েছে। ব্যবসা সঠিক ভাবে পরিচালনা করে ঝুঁকি থেকে বাঁচা যায়। রিসেলার ব্যবসা যদি ঝুঁকি বা আর্থিক ক্ষতির কথা বলি তাহলে এখানে ঝুঁকি তেমন নেই বলে চলে। 

কারণে এখানে আপনার টাকা খরচ করে দোকান দেওয়া ও ভাড়া লাগবে না পণ্য কিনার ঝামেলা নেই। পণ্য ক্রেতার কাছে পাঠানোর ও ঝামেলা নেই। এখানে শুধু কাস্টমার আপনাকে তাদের পছন্দের পণ্য অর্ডার করবে আপনি শুধু তা সাপ্লায়ারকে টাকা দিবেন পণ্য ডেলিভারি করার জন্য। 


রিসেলার ব্যবসার আইডিয়া 

আরো পড়ুন 

অল্প পুঁজিতে লাভজনক ১০ টি গ্রামের ব্যবসা আইডিয়া 

১০ টি বড় ব্যবসার আইডিয়া 

১. জামা কাপড় 

আমাদের তালিকা ১ নাম্বারে রয়েছে জামা কাপড় বিক্রি। জামা কাপড় চাহিদা অনেক আপনি একজন রিসেলার হিসেবে জামা কাপড় বিক্রি করতে পারেন। ছোট বড় নারী পুরুষ উভয় জন্য। 

আপনাকে গ্রাহকদের ফ্যাশন তারা কি ধরনের পোশাক পছন্দ করে কি ধরনের জামা কাপড় পরলে তাদের বেশি সুন্দর দেখাবে তা সম্পর্কে ভালো ধরণা থাকতে হবে। কারণ এখানে নানা বয়সে কাস্টমার আসবে 

জামা কাপড় পাশাপাশি জুতা, ব্যাগ ঘড়ি ইত্যাদি পণ্য বিক্রি করতে পারেন। এই পণ্যের ও অনেক চাহিদা আছে। 

২. ষ্টেশনারী পণ্য 

ষ্টেশনারী পণ্য অনলাইন হোক বা অফলাইন এর চাহিদা সব সময় থাকে। আপনি রিসেলার ব্যবসা শুরু কলার জন্য ষ্টেশনারী নানা রকম জিনিস বিক্রি করতে পারেন। 

ষ্টেশনারী পণ্য দাম ও অনেক কম। অফিসের কাজ কর্ম করার জন্য ষ্টেশনারী পণ্য অনেক চাহিদা আছে। অফিসে কাজে ব্যবহৃত ষ্টেশনারী গুলো হলো ফটো কপি ম্যাটেরিয়ালস, ফিন্টার উপাদান, মার্কার, খাম ইত্যাদি আরো অনেক পণ্য রয়েছে যা আপনি বিক্রি করতে পারেন। 

৩. কসমেটিক্স পণ্য 

জামা কাপড়ের মতো কসমেটিক্স চাহিদা অনেক। কসমেটিক্স পণ্য গুলোর মধ্যে আপনি কাস্টমারের চাহিদা অনুযায়ী রাখতে হবে যেমন হেয়ার কেয়ার, স্কিন কেয়ার ইত্যাদি মানসম্পন্ন পণ্য বিক্রি করতে হবে। মানসম্মত কসমেটিক্স পণ্য বিক্রি করলে এতে কাস্টমারের আপনার প্রতি আস্থা বাড়বে।

 এবং মাস শেষে ভালো টাকা ঘরে বসে আয় করতে পারবে। এছাড়াও আপনি চাইলে কসমেটিক্স পাশাপাশি বিভিন্ন রকম জুয়েলারি পণ্য বিক্রি করতে পারেন। বিভিন্ন উৎস অনুষ্ঠান মাথায় রেখে নাআ ধরনের জুয়েলারি বিক্রি করতে পারেন। 

৪. ছোট বাচ্চাদের প্রডাক্ট 

বেবি কেয়ারের বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করতে পারেন। এর চাহিদা আছে। এর পাশাপাশি আদারে খেলনা ও বিক্রি করতে পারবেন। 

আরো পড়ুন 

ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা ইনকাম করার ৫টি উপায় 

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন