দৈনন্দিন জীবনে সুস্থ ও কর্মক্ষম থাকা খুব জরুরী। পরিমান মতো খাদ্য খাওয়ার পাশাপাশি ব্যায়াম করা ও খুব গুরুত্বপূর্ণ। ব্যায়াম মন ও শরীর দুটি ভালো রাখে। আমরা সকলে চাই সুস্থ সুন্দর জীবন যাপন করে 
সুস্থ থাকার উপায়
সুস্থ থাকার উপায় 


 ব্যায়াম

 ধীরে সুস্থে ব্যায়াম শুরু করুন। শুরুতে প্রতিদিন ১০-২০ মিনিট ধীরে সুস্থে ব্যায়াম শুরু করুন। আপনি দীর্ঘ দিন ব্যায়াযের সাথে যুক্ত না থাকেন অথবা জটিল রৈগে আক্রান্ত থাকেন তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে প্রতিদিন ব্যায়াম শুরু করুন।

হাঁটাচলা

 প্রতিদিন ৩০ মিনিট শারীরিক প্ররিশ্রম হয় এই রকম কাজ করুন। বারী কাজ নাচ বা শরীরের অঙ্গ ভঙ্গি, প্রতিদিন দীপুরে খাবার খাওয়ার পর ১০ মিনিট হাঁটুন বাগানে কাজ করুন ।এতে আপনার শরীরর ও মন চাঙ্গা থাকবে।

 কর্মক্ষম মাংস পেশী  

ভারতোলন ক্ষেত্রে অনেক কাজে দিবে।  ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ম মেন জিমে বা ঘরে পানির বোতল ড্রাম মাংসপেশি সঞ্জালন বা অনুশীলন করতে পারেন।

মনের প্রশান্তি 

মনকে সুস্থীর বা প্রশান্তি ধ্যায়ন বা যোগ ব্যায়াম ।এতে আপনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা অনেক সহজ হয়ে যাবে।

আর্থিক পরিকল্পনা 

নিজেকে সুস্থ ও কর্মক্ষম রাখতে গিয়ে অর্থের প্রসঙ্গ চলে আসে। ঘরে নিজ উদ্যোগে কাজ গুলো করা যায়। যেমন আপনি টিভি রেডিও স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা ধরনের পরামর্শ বা ব্যায়াম সম্পর্কে অনুসরন করতে পারেন। ক্ষেত্রে ইউটিউব আপনাকে সাহায্য করতে পারে। বাস্তব সত্য হচ্ছে হাঁটা হাটি নাচ এসবের জন্য বিশেষ কোন সামগ্রিক প্রয়োজন হয় না।

বিশ্রাম 

সুস্থ ও কর্মক্ষম থাকতে বিশ্রামের বা ঘুমের ও প্রয়োজন আছে যা আপনার মনকে মস্তিষ্কে পুনরাই সচল রাখতে সাহায্য করে। প্রতিদিন অন্তত ৬ থেকে ৭ ঘন্টা ঘুমান। মাঝে মধ্যে কাজে বিরতী দিন বেড়াতে যান তাহলে আপনার শরীরর মন মানসিক সব ভালো থাকবে।

খাবার 

সুস্থ থাকার জন্য পরিমাণ মতো খাওয়ার খাওয়া খুব জরুরী। খাবার তালিকা পরিমাণ মতো মাছ, মাংস পাশাপাশি বেশি করে শাক সবজি রাখতে হবে। এবং ফল খাওয়া খুব জরুরী। 

আরো পড়ুন :- পানি খাওয়ার উপকারিতা । 


Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন